গাড়ির রেজিষ্ট্রেশন ও ফিটনেস চলবে, ড্রাইভিং লাইসেন্সের পরীক্ষা বন্ধ, প্যাসেঞ্জার ভয়েসকে বিআরটিএ চেয়ারম্যান ইউছুব মোল্লা

Samsuddin Chowdhury    |    ০৯:৪৯ পিএম, ২০২০-০৫-২৭


গাড়ির রেজিষ্ট্রেশন ও ফিটনেস চলবে, ড্রাইভিং লাইসেন্সের পরীক্ষা বন্ধ, প্যাসেঞ্জার ভয়েসকে বিআরটিএ চেয়ারম্যান ইউছুব মোল্লা

সামসুদ্দীন চৌধুরী : করোনা পরিস্থিতে গত ২৬ মার্চ থেকে টানা সাধারণ ছুটি আগামী ৩০ মে শেষ হচ্ছে। এরই মধ্যে ৩১ মে থেকে সকল সরকারি ও বেসরকারি অফিস চালু করার সিদ্ধান্ত দিয়েছে সরকার। সীমিত আকারে চলবে গণপরিবহন। 

একই সাথে খুলবে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) এর সকল সার্কেল অফিস। কিন্তু গাড়ির রেজিষ্ট্রেশন ও ফিটনেস প্রদান কার্যক্রম চলবে। তবে এখন আপাতত ড্রাইভিং লাইসেন্স পরীক্ষা বন্ধ থাকবে বলে প্যাসেঞ্জার ভয়েসকে এমনটা জানিয়েছেন  বিআরটিএর চেয়ারম্যান ইউছুব আলী মোল্লা।  

আজ বুধবার রাতে প্যাসেঞ্জার ভয়েসের সাথে আলাপকালে তিনি এইসব তথ্য জানান। 

বিআরটিএর চেয়ারম্যান (অতিরিক্ত দায়িত্ব) ইউছুব আলী মোল্লা বলেন, সরকারের সিদ্ধান্ত পেলে বিআরটিএর সকল সার্কেল খুলে দেওয়া হবে। তবে ড্রাইভিং লাইসেন্স পরীক্ষা কার্যক্রম আপাতত বন্ধ থাকবে। তবে অনলাইনে লার্নার লাইসেন্স এর আবেদন করতে পারবে।  কারন হিসেবে চেয়ারম্যান বলছেন ড্রাইভিং লাইসেন্স কার্যক্রমে সামাজিক দুরুত্ব নিশ্চিত করা না হওয়া পর্যন্ত কার্যক্রম চালু করা যাবে না।

গাড়ির রেজিষ্ট্রেশন প্রদান কার্যক্রম চলবে কিনা এমন প্রশ্নে বিআরটিএর চেয়ারম্যান ইউছুব আলী মোল্লা বলেন, সকল গাড়ির রেজিষ্ট্রেশন কার্যক্রম চালু করা হবে। এই ক্ষেত্রে মোটরসাইকেল অবশ্যই শোরুমের মাধ্যমে রেজিষ্ট্রেশনের আবেদন করতে হবে। প্রয়োজনে ৪০/৫০ টি গাড়ির রেজিষ্ট্রেশন এর আবেদন জমা হলে বিআরটিএর একজন মোটরযান পরিদর্শক অথবা সহকারী মোটরযান পরিদর্শককে শোরুমে পাঠিয়ে পরিদর্শনের ব্যবস্থা করা হবে। অন্য গাড়ি গুলো অনলাইনে রেজিষ্ট্রেশন এর আবেদন করতে পারবে। বিআরটিএ অনলাইন আবেদন গ্রহন করে পরিদর্শনের তারিখ জানিয়ে দেয়া হবে। নিদিষ্ট তারিখে শুধু মাত্র চালক গাড়িটি পরিদর্শন করাতে নিয়ে আসবে।

ফিটনেস প্রদান কার্যক্রমের বিষয়ে তিনি বলেন, ফিটনেস গ্রহনের ক্ষেত্রে শুধু মাত্র চালক গাড়িটি পরিদর্শন করাতে নিয়ে আসবে। গাড়ি পরিদর্শনের পরে কর্মকর্তা ওই চালককে নিদিষ্ট একটি সময় পরে ডেলিভারি বুথে যোগাযোগ করার পরামর্শ দিয়ে দিবেন। ওই সময়ে চালক স্বাস্থ্যবিধি মেনে নির্দিষ্ট বুথ থেকে ফিটনেস সনদ গ্রহন করবেন।   

তবে সবক্ষেত্রেই অনলাইন আবেদনকে গুরুত্ব দিবে বিআরটিএ।  সকল কর্মকর্তা কর্মচারীকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে কাজ করতে হবে।                    

যানবাহনের মেয়াদোত্তীর্ণ কাগজপত্র হালনাহাত করতে যে জরিমানা মওকুপের সুযোগ দিয়েছে সরকার করোনার হানায় তো প্রায় বেশিরভাগ গাড়ীর কাগজপত্র হালনাগাদ করতে পারেনি মালিকরা, এখন করনীয় কি এমন প্রশ্নে চেয়ারম্যান ইউছুব আলী মোল্লা বলেন, সরকারের ঘোষনা অনুযায়ী চলতি বছরের জুনের ৩০ তারিখ পর্যন্ত জরিমানা ছাড়া কাগজপত্র হালনাগাদ করার সুযোগ আছে। এর পরেও যদি মালিকদের পক্ষ থেকে সময় বাড়ানোর কোন আবেদন করা হয় তাহলে তা আমরা বিবেচনা করবো।