নিজ থেকেই লাল-নীল-সবুজ রঙে বদলানোয় পর্যটকদে কাছে জনপ্রিয় খুরপাতাল লেক

Passenger Voice    |    ০১:৪৯ পিএম, ২০২৩-০১-২৬


নিজ থেকেই লাল-নীল-সবুজ রঙে বদলানোয় পর্যটকদে কাছে জনপ্রিয় খুরপাতাল লেক

ভারত বৈচিত্র্যের দেশ। সেখানে অনেক ছোট-বড় হ্রদ আছে। এমনকি কিছু শহরকে হ্রদের শহরও বলা হয়। নৈনিতাল তার মধ্যে একটি।

বাজপুর-কালাদগুঙ্গি রোডে অবস্থিত, এটি উত্তরাখণ্ডের একটি সুন্দর হ্রদ। যদিও ভীমতাল, সাততাল, নৌকুচিয়াতাল, কমল তাল, গরুড় তালসহ আরও অনেক হ্রদ আছে সেখানে।

তেমনই এক হ্রদ হলো খুরপাতাল। তবে এই হ্রদের বিশেষত্ব হলো, এর পানির রং আপনাআপনি বদলে যায়। রং পরিবর্তনের কারণে হ্রদটি পর্যটকদের কাছে বিশেষ জনপ্রিয়

এ কারণে একে রহস্যময় লেকও বলা হয়। চলুন তবে জেনে নেওয়া যাক এই লেকের পানির রং পরিবর্তনের রহস্য আসলে কী-

খুরপাতাল ভূ-পৃষ্ঠ থেকে ১৬৩৫ মিটার উচ্চতায় অবস্থিত। নৈনিতালের কাছে সবচেয়ে সুন্দর স্থানগুলোর মধ্যে এটি অন্যতম। খুরপাতাল লেক সেখানকার একটি প্রধান পর্যটন কেন্দ্র।

সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১০০০ মিটারেরও বেশি উচ্চতার এই হ্রদ পাহাড় ও ঘন দেবদারু গাছে ঘেরা। এছাড়া লম্বা পাইন গাছ খুরপাতালের সৌন্দর্যকে আরও বাড়িয়ে তোলে। তবে আবহাওয়া পরিষ্কার না হলে খুরপাতালকে শুধু কল্পনাতেই দেখা যায়!

এই রহস্যময় হ্রদ তার মনোরম জলবায়ু ও স্ফটিক স্বচ্ছ পানির জন্য বিশেষ পরিচিত। যারা নৈনিতালের কোলাহল থেকে দূরে থাকতে ও প্রকৃতির মাঝে কিছু শান্ত মুহূর্ত কাটাতে চান, তাদের জন্য হ্রদটি সেরা পর্যটন গন্তব্য।

স্থানীয়দের মতে, এই লেকের পানির রং কখনো লাল, কখনো নীল আবার কখনো সবুজ বর্ণ ধারণ করে। স্থানীয়দের বিশ্বাস, লেকের পানির রং পরিবর্তনের সঙ্গে নাকি ভবিষ্যতের ইঙ্গিত মেলে।

উদাহরণস্বরূপ, হালকা লাল রং কোনো বিপর্যয়ের আগমনের লক্ষণ! একইভাবে মার্চ মাসে, এর রং সোনালিরঙা হয়ে ওঠে, যা সমৃদ্ধির প্রতীক হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

একই সময়ে পাইনের ফুল এখানে মার্চ-এপ্রিল মাসে পড়ে, যার কারণে হ্রদের রং কিছুটা পরিবর্তন হয়। অনেক সময় গাছের ছায়ার কারণেও লেকের রং সবুজ দেখায়।

এই হ্রদের রং পরিবর্তনের কারণ কী?

গবেষকদের মতে, এই হ্রদের অভ্যন্তরে ৪০টিরও বেশি ধরনের শৈবাল বা শৈবাল প্রজাতি আছে। শেওলা যখন বীজ থেকে বেরিয়ে যায়, তখন সূর্যের রশ্মির কারণে তাতে বিভিন্ন রং দেখা যায়।

খুরপাতালের স্বচ্ছ লেকের পানিতে আপনাপর চোখে পড়তে পারে প্রচুর মাছ। আসলে এই হ্রদে মাছের অনেক প্রজাতির প্রাকৃতিক বাসস্থান। এমনকি মাছ ধরার জন্যও এই স্থান উপযুক্ত।

খুরপাতাল দেখার সেরা সময় কখন?

যদিও আপনি বছরের যে কোনো সময়ই খুরপাতাল ঘুরে আসতে পারেন। তবে অক্টোবর থেকে মে মাসের মধ্যে যাওয়াই ভালো।

তবে শীতকালে তুষারপাতের কারণে এখানকার তাপমাত্রা খুব কমে যায় ও বর্ষার দিনে ভারী বৃষ্টিপাতের কারণে যাতায়াত করা কঠিন হয়ে পড়ে। সূত্র: প্রেসওয়ার ১৮


প্যা/ভ/ম